আলোর পথে

বই পরিচিতিঃ

ভুমিকাঃ

বিশ্ব স্রষ্টা আল্লাহ রাব্বুল আ’লামীন তাঁর সত্য কালামে স্পষ্ট বর্ণনা করেনÑ
هُوَ الَّذِيۤ أَرْسَلَ رَسُولَهُ بِالْهُدَىٰ وَدِينِ الْحَقِّ لِيُظْهِرَهُ عَلَى الدِّينِ كُلِّهِ وَلَوْ كَرِهَ الْمُشْرِكُونَ.
‘তিনিই প্রেরণ করেছেন আপন রাসূলকে হেদায়েত ও সত্য দ্বীন সহকারে, যেন এ দ্বীনকে অপরাপর দ্বীনের ওপর জয়যুক্ত করেন, যদিও মুশরিকরা তা অপ্রীতিকর মনে করে।’ -সূরা আস সফ-৯
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর জীবদ্দশায় পবিত্র হিজায ভূমির সীমান্ত পর্যন্ত সম বাতিল ধর্মের উপর ইসলাম বিজয় লাভ করেছিল। বিশ্বব্যাপী ধর্ম পুরো বিশ্বে বিজয়ী হওয়ারই কথা। আল্লাহর সত্য নবী এই খবরও দিয়েছেন যে, প্রত্যেক কাঁচা-পাকা ঘরে ইসলাম প্রবেশ করবে। কেয়ামতের অধিকাংশ আলামত প্রকাশ হয়ে গেছে। খতমে নবুওয়াতের মধ্যে ইসলামের পয়গামকে পুরো বিশ্বে পৌঁছিয়ে দেওয়ার জিম্মাদারী আমাদের দেয়া হয়েছে। এই মহান জিম্মাদারী পালনে উদাসীনতার কারণে মানুষ (বিশেষভাবে অমুসলিমরা) সত্যধর্ম ইসলামের পরিচয় পায়নি। পুরো বিশ্বে ইসলামের সঠিক পরিচয় না জানার কারণে অথবা ভুল ধারণা থাকার কারণে ইসলাম ও মুসলমানদের ব্যাপারে অপপ্রচারের জোয়ার বইছে। কিন্তু আল্লাহর শান যে, ইসলাম ও কুরআনের বিরূদ্ধ অপপ্রচারের দ্বারা
সাধারণ মানুষের মাঝে ইসলামকে জানার আগ্রহ বাড়ছে। আগের যুগে মানুষ ইসলামকে জানতো মুসলমানদের আখলাক-চরিত্রের মাধ্যমে। কিন্তু বর্তমান যুগে আধুনিক প্রচারযন্ত্রের মাধ্যমে বিশেষ করে ইন্টারনেটের আবিষ্কারে ইসলামকে মানুষের বিছানা পর্যন্তপৌঁছিয়ে দিয়েছে। এর ফলে পুরো বিশ্বে মানুষকে দলে দলে ইসলাম গ্রহণ করতে দেখা যাচ্ছে। আরো আশ্চর্যের বিষয় হলো, ইসলাম গ্রহণের ঘটনা পশ্চিমা বিশ্বেই বেশি। বিশেষত; যেখান থেকে ইসলামের প্রোপাগান্ডা বেশি ছাড়ানো হচ্ছে, সেখানে আতিœক ও বাহ্যিক ভাবে ধর্মের জন্য পাগল এমন অনেক নওমুসলিম রয়েছেন, যাঁরা ইসলামের শুরু যামানার নওমুসলিমদের মতো জীবন উৎসর্গকারী। আমাদের দেশ হিন্দুস্তানেও ইসলাম গ্রহণকারীর সংখ্যাও কম নয়।
যদি পুরো বিশ্বে ইসলাম গ্রহণকারীদের বড় একটি সংখ্যার অবস্থার উপর চিন্তা করা যায়, তাহলে খুব আশ্চর্যের সাথে তিনটি বিষয় স্পষ্ট হয়ে উঠে।

লেখকঃ যুবায়ের আহমদ
প্রকাশনায়ঃ হিলফুলফুজুল প্রকাশনী
প্রকাশকালঃ ২০১৫

ডাউনলোডঃ
এখানে ক্লিক করুন!