আল কুরআনে যীশু ও খ্রিস্টধর্ম

বই পরিচিতিঃ আল কুরআনে যীশু ও খ্রিস্টধর্ম

ভুমিকাঃ
সমস্ত প্রশংসা মহান আল্লাহ তা‘আলার জন্য যিনি কোনো আবেদন ছাড়াই আমাদেরকে হযরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লামের উম্মত বানিয়েছেন। দরুদ ও সালাম সাইয়্যিদুল মুরসালীন, খাতামুন নাবীয়্যিন, আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসল্লাম এবং তাঁর পরিবারবর্গ ও সাহাবা (রা.)- এর ওপর।

রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সকল মানুষের নবী। তেমনি আল কুরআনও হলো, সকল মানুষের জন্য। হিন্দু, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ, সকল মানুষের পথপদর্শক হলো, আল কুরআন। কুরআন নিজেই শুরুতে বলেছে এই কুরআনে কোনো সন্দেহ নেই। এমনি চ্যালেঞ্জ করেছে, যে, এর মধ্যে কোনো ভুল নেই।
আল্লাহ তাআলা ফেরেশতার মাধ্যমে তাঁর এই বাণীকে হযরত মুহাম্মদ সাল্লল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম-এর উপর অবতীর্ণ করেছেন। তিনি মুখস্থ রেখেছেন। আল্লাহ তাআলা এই কুরআন সংরক্ষণের ওয়াদা করেছেন। যা অন্য কোনো আসমানী কিতাবের ব্যাপারে করেন নি। তাই নবীজী থেকে সাহাবাগণ মুখস্থ করেছেন। সাহাবাদের থেকে পরবর্তি লোকেরা মুখস্থ করেছেন। ধারাবাহিক ভাবে আমাদের পর্যন্ত শিশুদের অন্তরে এই কুরআন মুখস্থ করিয়ে হেফাজত করেছেন। তাই আমাদেরকে এই কুরআন মানা উচিত।
আমার বহুদিন থেকে চিন্তা ছিলো যে, আমি কুরআন থেকে যীশুর জীবনী খ্রিস্টান ভাইদের কাছে পৌঁছাব। কারণ তারা হযরত ঈসা আ. এর সঠিক ইতিহাস জানে না। তাই কুরআন থেকে ঈসা আ. সম্পর্কিত আয়াত গুলোর অনুবাদ ও সংখিপ্ত ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছি।
এই পুস্তিকাটি প্রকাশে বিভিন্নজন বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন। তার মধ্যে কয়েক জনের নাম না এনে পারছি না। বইটি প্রুফ দেখে সহযোগিতা করেছেন আমার বন্ধুবর মাওলানা জহিরুদ্দীন বাবর সাহেব; ও ভাই আব্দুল্লাহ। আল্লাহ তাদেরকে উত্তম প্রতিদান দিন।
আমি হলাম লেখালেখির ময়দানে শিশু শ্রেণীর ছাত্র। তবুও আমরা আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করেছি। এরপরও যদি কোনো ভাই-বোনের কাছে ভুল-ত্রুটি দৃষ্টিপাত হয়, তাহলে জানালে খুশি হবো এবং দ্বিতীয় সংস্করণে ঠিক করে দেয়ার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ্।

যুবায়ের আহমদ
ইসলামী দাওয়া ইনস্টিটিউট
০৪,০৪,২০১৬ ঈ.

লেখকঃ
মুফতি যুবায়ের আহমদ
পরিচালক: ইসলামী দাওয়াহ ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ
মান্ডা শেষ মাথা, মুগদা, ঢাকা-১২১৪
০১৯১৭ ৫৯৭ ৫৫১

প্রকাশকালঃ এপ্রিল ২০১৬ ই.

ডাউনলোডঃ
এখানে ক্লিক করুন! অনলাইনে পড়ুন