হাদিয়ায়ে দাওয়াত

বই পরিচিতিঃ
হাদিয়ায়ে দাওয়াত

ভুমিকাঃ
কুরআন মাজিদে মুসলিম জাতিকে সর্বোত্তম জাতি বলা হয়েছে। কিন্তু সাথে সাথে তার গুরুত্বপূর্ণ গুণাবলীর কথাও আলোচনা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, “তোমরা সর্বোত্তম জাতি যাদেরকে বের করা হয়েছে মানুষদের জন্য। তোমরা সৎকাজের আদেশ করবে, অসৎ কাজের নিষেধ করবে। আর আল্লাহ তা‘আলার উপর ঈমান আনবে।”
আয়াতটি হলো এইÑ
كنتم خير امة اخرجت للناس…….
এই উম্মতের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল দাওয়াত ও হেদায়াতের কাজ। আর এই বৈশিষ্ট্যের কারণেই অন্যান্য জাতির উপর মুসলিম জাতিকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। কেয়ামত পর্যন্ত তাদের উপর এ দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে। এই উম্মতকে অন্যান্য জাতির উপর দায়িত্বশীল বানানো হয়েছে। হাশরের দিন অন্য সকল জাতির আমলের জন্য উম্মতে মুহাম্মদিকে সাক্ষী হওয়ার অধিকার-মর্যাদা দান করা হয়েছে।
উম্মতে মুহাম্মদি অন্যান্য সকল জাতির ভালো এবং মন্দের মাঝে পার্থক্য করবে এবং সৎকাজের আদেশ ও অসৎ কাজের নিষেধের ভিত্তিতে এই উম্মত সকল জাতির কোন আমল করা উচিত আর কোনটি অনুচিত এ ব্যাপারে জ্ঞাত হবে। এই জন্য এই উম্মত তাদের আমলের সর্বোত্তম সাক্ষী হবে। কিন্তু আয়াতের শেষ অংশে আল্লাহ তা‘আলার উপর ঈমান আনা এই জাতির বৈশিষ্ট্য বলে উল্লেখ করা হয়েছে। আল্লাহর উপর ঈমান আনার উদ্দেশ্য হলো মানুষ যেন শুধুমাত্র আল্লাহর একত্ববাদ, তাঁর প্রভুত্বকে মেনে নেয়। তিনিই ইবাদত ও সিজদা পাওয়ার যোগ্য এর উপর পূর্ণ

মূল লেখকঃ
হযরত মাওলানা কালিম সিদ্দিকী সাহেব (দা.বা.)
খলিফা : মুফাক্কিরে ইসলাম সাইয়্যেদ আবুল হাসান আলী নদভী রহ.
পরিচালক : জামিয়াতুল ইসলাম শাহ ওলিউল্লাহ

অনুবাদঃ
মুফতি যুবায়ের আহমদ
পরিচালক: ইসলামী দাওয়াহ ইনস্টিটিউট
মান্ডা শেষ মাথা, মুগদা , ঢাকা-১২১৪
০১৯১৭ ৫৯৭ ৫৫১

প্রকাশকালঃ ২০১৫

ডাউনলোডঃ
এখানে ক্লিক করুন! অনলাইনে পড়ুন